Youtube Channel Subscribe us

ভারতে জাতীয়তাবাদ বিকাশে আনন্দমঠ এর ভূমিকা লেখ।


ভারতে জাতীয়তাবাদ বিকাশে আনন্দমঠ এর ভূমিকা লেখ।


ভূমিকা:

 বাংলা তথা ভারতের জাতীয়তাবাদী চিন্তা-চেতনা, দেশাত্মবোধ সৃষ্টি ও বিপ্লববাদের উদ্বুদ্ধ করতে বঙ্কিম সাহিত্য গুলির মধ্যে আনন্দমঠ এর ভূমিকা প্রশংসনীয়। তার এই উপন্যাসটি ভারতবাসীর কাছে আদর্শের গীতা নামে পরিচিত।

পটভূমি: 

(১) বাংলায় ইংরেজ শাসনের প্রারম্ভিক দ্বৈত শাসনের নির্মম ফলশ্রুতি স্বরূপ ঘটে যাওয়া নির্মম ছিয়াত্তরের মন্বন্তর।

(২) সন্ন্যাসী ফকিরদের প্রতি ইংরেজিতে অন্যান্য অত্যাচার ইত্যাদি এই উপন্যাসের পটভূমি রচিত করেছিল।

প্রকাশকাল

১৮৮২ খ্রিস্টাব্দে তার এই বিখ্যাত আনন্দমঠ উপন্যাসটি পূর্ণাঙ্গ প্রকাশিত হয়। কিন্তু তার আগে বঙ্গদর্শন পত্রিকায় ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হতো।

জাতীয়তাবাদ বিকাশের দিক:

ব্রিটিশ শাসনে দুর্দশার চিত্র:

 তিনি তার এই উপন্যাসে ভারতবাসীর সামনে পরাধীন ভারত মাতার দুর্দশার করুণ চিত্র তুলে ধরেন। স্বৈরাচারী ব্রিটিশ শাসনের বিরুদ্ধে ভারতবাসীকে বিদ্রোহের আহ্বান করেছেন।

দেশমাতৃকা তার আদর্শ:

 তিনি দেশবাসীর সামনে দেশমাতৃকার আদর্শ ও গৌরবগাথা উল্লেখ করেন,____
         (১) দেশ নিছক একটি জড় বস্তু নয়, তার চিন্ময়ী সত্তা আছে।
       (২) দেশ আমাদের মা, আমরা অন্য মা মানি না।
  (৩) দেশ আমাদের ঈশ্বর, দেশপ্রেম ই ধর্ম, এই ধর্ম সনাতন ধর্ম।
  (৪) তিনি আরো বলেন জন্মভূমি আমাদের মা, বাপ নেই বন্ধু নেই আছে কেবল সুজলা, সুফলা শীতলা শস্য-শ্যামলা মা।

আত্মবিশ্বাসের সঞ্চার:

 তিনি ভারতীয়দের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের সঞ্চার ঘটাতে গিয়ে উপন্যাসে উল্লেখ করেন। আত্মবিশ্বাস শক্তি ও আত্মদানের মধ্য দিয়ে দেশমাতৃকার মুক্তির লক্ষ্যে ব্রিটিশ সরকারের প্রতি আবেদন নিবেদন নীতি কে বর্জন করা।

নারী সমাজকে জাগরণ: 

তিনি উপলব্ধি করেছিলেন নারীজাতির না জাগলে দেশ ও সমাজ জাগরণ অসম্ভব। তাই দেশমাতার মুক্তির জন্য নারী সমাজকে নিবিড় ভাবে জাগরিত করার পাশাপাশি জনগণের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন।

সন্ন্যাসীদের প্রেমে উদ্বুদ্ধ: 

তিনি তার এই উপন্যাসের নতুন সন্ন্যাসী সম্প্রদায় সৃষ্টির কথা বলেছেন। সন্ন্যাসীদের উদ্দেশ্যে লিখেন সন্ন্যাসীর লক্ষ্য মানুষের মুক্তি, দেশের মুক্তিও দেশ হতে শোনা। এর জন্য অরণ্য যাওয়ার প্রয়োজন নেই।

বন্দেমাতরম সংগীত: 

উপন্যাসে এই সঙ্গীতটি ক্রমে দেশপ্রেমিক ও জনগণের কাছে জাতীয়তাবোধে জাতীয় সংগীতে পরিণত হয় এবং বিপ্লবীরা অগ্রিম মন্ত্রে দীক্ষিত হয়।

মূল্যায়ন: সুতরাং আনন্দমঠ এর আদর্শ যুগ যুগ ধরে পরাধীন জাতির মনে বিপ্লবী বাদের উদ্ভব অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে এবং জাতীয় সংগীতের মর্যাদা লাভ করেছে।

আরো দেখুন :


Next Post Previous Post
×