Youtube Channel Subscribe us

আদ্র কৃষি ও শুষ্ক কৃষির পার্থক্য


আদ্র কৃষি ও শুষ্ক কৃষির বৈশিষ্ট্য / পার্থক্য আলোচনা করো

➞ সংজ্ঞা :
কেবলমাত্র বৃষ্টির জলের উপর নির্ভর করে যে কৃষি কাজ করা হয় তাকে আদ্র কৃষি বলে।

স্বল্প বৃষ্টিপাত ও স্বল্প জলসেচ যুক্ত অঞ্চলে যে কৃষি কাজ গড়ে ওঠে তাকে শুষ্ক কৃষি বলে।

➞ জলবায়ু :
আদ্র কৃষি নিরক্ষীয় মৌসুমী জলবায়ু অঞ্চলে গড়ে ওঠে।

শুষ্ক মহাদেশীয় ও মরু প্রায় জলবায়ু অঞ্চলে শুষ্ক কৃষি গড়ে ওঠে।

➞ বৃষ্টিপাত :
আদ্র কৃষি অঞ্চলে বার্ষিক বৃষ্টিপাত 110 সেন্টিমিটার হওয়া প্রয়োজন।

শুষ্ক কৃষি অঞ্চলে বার্ষিক বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ৭৫ সেমির কম প্রয়োজন।

➞ শস্যের প্রকার :
আদ্র কৃষি অঞ্চলে এক বা দ্বি-ফসলি শস্যের চাষ হয়।

শুষ্ক কৃষি অঞ্চলে এক ফসলি শস্যের চাষ হয়।

➞ উৎপাদন মাত্রা :
আদ্র কৃষি অঞ্চলে হেক্টর প্রতি উৎপাদন অনেক বেশি হয়।

শুষ্ক কৃষি অঞ্চলে হেক্টর প্রতি উৎপাদন অনেক কম হয়।

➞ কৃষিজ ফসল :
আদ্র কৃষি অঞ্চলে ধান প্রধান ফসল এছাড়াও পাট, আখ, চা ইত্যাদি চাষ হয়।

শুষ্ক কৃষি অঞ্চলে মিলেট প্রধান ফসল এছাড়াও ভুট্টা গম তৈলবীজ চাষ হয়।


Next Post Previous Post
×