Youtube Channel Subscribe us

ওয়েগনারের মহাদেশীয় সঞ্চালন তত্ত্বের স্বপক্ষে প্রমাণ ব্যাখ্যা করো।।


ওয়েগনারের মহাদেশীয় সঞ্চালন তত্ত্বের স্বপক্ষে প্রমাণ ব্যাখ্যা করো।।

1. উপকূলরেখার পরস্পর জোড় :

 ওয়েগনারের মতে অনেক আগে মহাসাগরে উভয় উপকূল পরস্পর সংযুক্ত ছিল, কোন বস্তু ভেঙে গেলে যেমনটা তা জোড়া লাগানো সম্ভব তেমনি মহীসঞ্চরণ এর ফলে বিচ্ছিন্ন দুই মহাদেশের উপকূল জোড় লাগানো অসম্ভব ।
 
উদাহরণ :
ব্রাজিলের রকঅন্তরিক গিনি উপসাগরের ও পশ্চিম আফ্রিকার স্ফীত অংশ মেক্সিকো উপসাগরে জোড়।

2. ভূগাঠনিক সাদৃশ্য:

 আটলান্টিক মহাসাগরের দুই বিপরীত উপকূলের মধ্যে বেশ কিছু গঠনগত সাদৃশ্য লক্ষ্য করা যায়।

 উদাহরণ :

  আটলান্টীক মহাসাগরে পশ্চিমে ক্যালিডোনিয়ান পর্বত এবং পূর্ব হারসিনিয়াম পর্বত গঠনগত ভাবে সম প্রকৃতির।

3. উদ্ভিদ ও প্রাণীর জীবাশ্ম :

ব্রাজিল, ভারত, দক্ষিণ আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, আন্টার্টিকা প্রভৃতি জায়গা জুড়ে একপ্রকার জাতীয় উদ্ভিদ জীবাশ্ম পাওয়া যায় । জীব বিজ্ঞানীদের মতে জলের উপর দিয়ে এইসব উদ্ভিদের বংশবিস্তার সম্ভব নয় অথচ ওই অঞ্চল গুলির মধ্যে সমুদ্রের ব্যবধান রয়েছে, তাই বলা যেতে পারে পূর্বে এই ব্যবধান না থাকায় বংশবিস্তার সম্ভব হয়েছে।

উপরিউক্ত প্রমাণগুলি থেকে বোঝা যায় সমস্ত মহাদেশ এক প্রকার একত্রিত ছিল।


Next Post Previous Post
×