ভারতের রেলপথ প্রবর্তন এর উদ্দেশ্য ও প্রভাব আলোচনা করো - রেলপথ স্থাপনের সুফল ও কুফল

HS History Selective Questions And Answer

ব্রিটিশ শাসনকালে  1853 খ্রিস্টাব্দ থেকে 1947 খ্রিস্টাব্দের মধ্যে ভারতের রেলপথের প্রসার ঘটে। ভারতের রেলপথ প্রবর্তন ভারতীয় জনসংস্কৃতি ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক সূচনা করে। রেলপথ স্থাপনের সুফল ও কুফল প্রভাব লক্ষ্য করা যায়।

রেলপথ স্থাপনের সুফল গুলি হল

1. আমদানি বৃদ্ধি

রেলের এর মাধ্যমে ভারতে বিদেশী পণ্যের আমদানি যথেষ্ট পরিমাণে বৃদ্ধি পায়। বিলাতের বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী ভারতের বন্দরে এসে তা রেলপথের মাধ্যমে দেশের অভ্যন্তরে পৌঁছে যায়।

2. রপ্তানি বৃদ্ধি

রেল পরিবহন এর ফলে রপ্তানির পরিমাণ ও বৃদ্ধি পায়। দেশের নানা অঞ্চলের উৎপাদিত সামগ্রী সংগ্রহ করে বিদেশে পাঠানো সম্ভব হয়।

3. আধুনিক শিল্পের বিকাশ

প্রকৃতপক্ষে ভারতীয় আধুনিক শিল্পের বিকাশে রেলপথের গুরুত্ব অপরিসীম। রেলপথ পণ্য পরিবহন খরচ কম হয়। ভারতের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে কাঁচামাল সংগ্রহ করে এবং শিল্পজাত পণ্যের নানা অঞ্চলে পৌঁছে দেয়া সহজ হয়।

4. জাতীয় ঐক্য

ভারতবর্ষের রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে রেলপথের ইতিবাচক ভূমিকা লক্ষ্য করা যায়। রেল ব্যবস্থার মাধ্যমে দেশের নানা অংশের মধ্যে সংযোগ স্থাপিত হয় ও জাতীয় ঐক্য গঠিত হয়।

5. কর্মসংস্থান

ভারতে রেলপথ স্থাপনের মাধ্যমে রেলপথ নির্মাণ, রেল কারখানা প্রভৃতি ক্ষেত্রে কর্মসংস্থানের সুযোগ পায়। দেশের ভূমিহীন কৃষক শ্রমিক হিসেবে রিলের কাজে নিযুক্ত হয়।

6. যোগাযোগের প্রসার

রেলপথ প্রসারের ফলে ভারতে বিভিন্ন প্রান্তের সঙ্গে যোগাযোগ সহজতর হয়ে ওঠে। এর ফলে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মধ্যে প্রশাসনিক ঐক্য গড়ে ওঠে।

রেলপথ স্থাপনের কুফল গুলি হল

1. দেশীয় শিল্পের অবক্ষয়

রেলপথ সম্প্রসারণ ভারতের ক্ষেত্রে কিছু কিছু ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলেছিল। রেলপথ কারখানায় উৎপাদিত সস্থা কাপড় উন্নয়নশীল পূর্ব ভারতের গ্রামীণ অঞ্চলে পৌঁছে যায়, ভারত ব্রিটিশ পণ্যের বাজারে পরিণত হয়। ফলে ভারতের কুটির শিল্প ধ্বংস হয়।

2. সম্পদের বহির্গমন

প্রথম পর্বে রেলপথ নির্মাণের যে বিপুল পরিমাণ মূলধন বিনিয়োগ করা হয়, গ্যারান্টি প্রথার মাধ্যমে সরকার তাতে বার্ষিক 5% সুদ দেওয়ার গ্যারান্টি দেয়। ফলে প্রতিবছর বিপুল পরিমাণ অর্থ লাভের মুনাফায় বিদেশে চলে যেতে থাকে।

3. বৈষম্যমূলক আচরণ

রেল কর্তৃপক্ষ ভারতীয়দের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করা হতো। ভারতীয় যাত্রীদের শ্বেতাঙ্গ যাত্রীরা লাঞ্ছনা করত। মালপত্র পরিবহনে শ্বেতাঙ্গদের থেকে ভারতীয়দের বেশি ভাড়া দিতে হতো।

4. দুর্ভিক্ষের প্রকোপ

দুর্ভিক্ষ চিহ্নিত অঞ্চলে রেল এর মাধ্যমে খাদ্য পাঠানো হলেও পরোক্ষভাবে রেলপথ ব্যবস্থা দুর্ভিক্ষ সৃষ্টি করে। কারণ রেল এর মাধ্যমে খাদ্যদ্রব্য দেশের অন্যত্র এমন কি বিদেশে রপ্তানির ফলে উৎপাদক অঞ্চল এর দুর্ভিক্ষ দেখা যায়।

5. যন্ত্রপাতি আমদানি

ভারতে রেলপথ স্থাপনের জন্য রেলের ইঞ্জিন ও অন্যান্য যন্ত্রপাতি গুলি ইংল্যান্ড থেকে ভারতে আনা হতো। ফলে ভারতে রেলপথ নির্মিত হলেও এদেশের ভারী শিল্পের প্রসার ঘটেনি।

উপসংহার

ব্রিটিশ সরকার নিজেদের স্বার্থে ভারতে রেলপথ প্রতিষ্ঠিত করে । মার্কিন ঐতিহাসিক বোকামন বলেছেন, স্বনির্ভরতায় যে কর্ম ভারতের গ্রামগুলিকে এতদিন রক্ষা করে এসেছিল, ইস্পাতের সেই বর্ণভেদ করে গ্রামজীবনের রক্ত শোষণ করে । তবে সার্বিক বিচারে রেলপথের প্রচারের ফলে ভারতীয়রা উপকৃত হয়েছিল।
×