মন্টেস্কু চেমসফর্ড সংস্কার আইনের সমালোচনা মূলক আলোচনা করো | Class 12 History Suggestions

Class 12 History Suggestions Questions Answers

মন্টেস্কু চেমসফর্ড সংস্কার আইনের সমালোচনা


1909 খ্রিস্টাব্দের মর্লে মিন্টো সংস্কার আইন ভারতীয়দের খুশি করতে পারেনি পরবর্তী প্রায় এক দশকে ভারতীয় রাজনীতিতে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ঘটে এই পরিস্থিতিতে ভারত সচিব মন্টেস্কু ও ভাইসরয় লউ চেমস নেতৃত্বে একটি আইন পাস করে যা মন্টেস্কু চেমসফোর্ড আইন নামে পরিচিত।

মন্টেস্কু চেমসফর্ড সংস্কার আইনের উদ্দেশ্য

1. 1909 খ্রিস্টাব্দে মরলে মিন্টো শাসনের ব্যার্থতা দূর করা ।

2. শাসন বিভাগে ভারতীয়দের যুক্ত করা।

3. দায়িত্বশীল সরকার গঠন করে বিভিন্ন শাসনমূলক প্রতিষ্ঠানগুলিকে আরো শক্তিশালী করে তোলা।

4. প্রাদেশিক সরকারের ক্ষেত্রে ভারতীয়দের আরো বেশি করে দায়িত্ব প্রদান করা হয়।


মন্টেস্কু চেমসফর্ড সংস্কার আইনের বৈশিষ্ট্য

1. ক্ষমতা পূর্বের তুলনায় বাড়ানো হবে।

2. কেন্দ্রও প্রাদেশিক সরকারের ক্ষমতা বন্টন করা হবে।

3. এ দেশগুলিতে দৈত্যশাসন ব্যবস্থা চালু হবে।

4. কেন্দ্রীয় আইন সভাগুলি দিকক্ষ বিশিষ্ট হবে।

5. সম্পত্তির মালিকানা প্রাপ্ত ব্যক্তিরা আয়করের ভিত্তিতে ভোটের অধিকার পাবে।

6. সংখ্যালঘু মুসলিমরা আলাদা নির্বাচন নীতির অনুমোদন পাবে।

7. এই সংস্কার আইনের দ্বারা নির্বাচন ব্যবস্থায় অনুন্নত শ্রেণীর জন্য আসন সংরক্ষিত থাকবে।

8. বড় লোকের কার্য সমিতিতে পাঁচজন সেতাঙ্গ সদস্য ও তিনজন ভারতীয় সদস্য কে নিয়ে আইন পরিষদ গঠন করা হবে।

9. গভর্নর জেনারেলের অনুমতি ছাড়া কেন্দ্রীয় আইনসভার পেশ করা আলোচনা চলবে না ।

10. সার্বিক প্রাপ্তবয়স্কের ভোটাধিকারের বদলে গুণীজনদের ভোটাধিকার বেশি গুরুত্ব পাবে।


মন্টেস্কু চেমসফর্ড সংস্কার আইনের সমালোচনা

বিভিন্ন দৃষ্টি কোন থেকে 1919 খ্রিস্টাব্দে মন্টেগু-চেমসফোর্ড আইন এর সমালোচনা করা হয় তিলক বলেন এই আইন সূর্যালোকহিন প্রভাতের সৃষ্টি করেছ।

1. এই আইনের দ্বারা ভারতে প্রতিনিধিমূলক শাসনব্যবস্থার প্রতিষ্ঠার কোনো চেষ্টা করা হয়নি।
2. এই আইনের দ্বারা কোনো দায়িত্বশীল শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত হয়নি।
3. প্রদেশগুলি স্থায়ত্ব শাসন পাইনি।
4. সর্বসাধারণের ভোটদানের অধিকার স্বীকৃত হয়নি।
5. মুসলিমদের পৃথক ভোটাধিকার দান করা হলে সাম্প্রদায়িক বৃদ্ধি পায়।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url