ক্রিপস কেন ভারতে এসেছিল ? এর প্রস্তাবগুলি কি ছিল? এবং এর ব্যর্থতার কারণগুলি কি ছিল ? | Class 12 History Suggestions

Class 12 History Suggestions And Model Question

ক্রিপস কেন ভারতে এসেছিল ? এর প্রস্তাবগুলি কি ছিল? এবং এর ব্যর্থতার কারণগুলি কি ছিল ?


দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন ভারতে ব্রিটিশ সরকার ভারতবাসীর আর্থিক ও সামাজিক অবস্থায় সাহায্য করে । কংগ্রেস এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করে এই পরিস্থিতিতে 1942 খ্রিস্টাব্দে মার্চ মাসে ব্রিটিশ মন্ত্রিসভার সদস্য স্যার স্ট্যাফোর্ড ভারতীয়দের সন্তুষ্ট করার জন্য কতগুলি প্রস্তাব নিয়ে ভারতে আসেন ইহা ক্রিপস প্রস্তাব নামে পরিচিত।

ক্রিপস প্রস্তাব এর পটভূমি

নিম্নলিখিত কারণ গুলির জন্য ক্রিপস ভারতে এসেছিল -

প্রথমত
1942 খ্রিস্টাব্দে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ব্রিটেন ও মিত্রপক্ষে এক সংকট জনক অবস্থার মধ্য দিয়ে যাচ্ছিল এই সংকট কাটানোর জন্য ব্রিটেনের ভারতকে পাশে পাওয়া জরুরি হয়েছিল।

দ্বিতীয়
একদিকে জার্মানির সমস্ত ইউরোপে আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করে । 1942 খ্রিস্টাব্দে মার্চ মাসে জাপান ভারতের নিকটে এসে হাজির হয় এই পরিস্থিতিতে জাপানি আক্রমণের মোকাবিলায় ভারতবাসীর সক্রিয় সাহায্যের আশায় ব্রিটিশ সরকার ব্যগ্র হয়ে উঠে।

তৃতীয়
অপর পক্ষীয় ব্রিটিশের মিত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি রোজভেলট ভারত কে শাসন সংস্কারের দাবি দেওয়ার জন্য ব্রিটিশ এর ওপর চাপ সৃষ্টি করে।


ক্রিপস প্রস্তাব এর শর্তাবলী

ক্রিপস প্রস্তাব বলা যায় - 
1. যুদ্ধের পর ভারতকে ডোমিনিয়ন এর মর্যাদা দেওয়া হবে।

2. যুদ্ধের পর ভারতীয় প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি সংবিধান গঠন হবে।

3. সংবিধান সভার সদস্যগণ প্রাদেশিক আইন সভা গুলির নিম্নকক্ষ দ্বারা নির্বাচিত এবং দেশীয় রাজ্যগুলির প্রতিনিধিরা দেশীয় রাজাদের দ্বারা মনোনীত হবেন।

ক্রিপস প্রস্তাব এর প্রতিক্রিয়া

1. কংগ্রেসের প্রতিক্রিয়া
দেশভাগের সম্ভাবনাকে প্রশ্রয় দেওয়ায় ক্রিপস প্রস্তাবের তীব্র বিরোধিতা করে কংগ্রেস তা প্রত্যাখ্যান করে।

2. মুসলিম এর প্রতিক্রিয়া
ক্রিপস প্রস্তাব মুসলিমদের জন্য পৃথক পাকিস্তানের কোন সুনিশ্চিত প্রতিশ্রুতি ছিল না, গণপরিষদ সভায় হিন্দুদের প্রাধান্য থাকায় লীগ ক্রিপস প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে।

3. শিখ সম্প্রদায়ের প্রতিক্রিয়া
ভারতীয় শিক সম্প্রদায় ও ক্রিপস প্রস্তাব মেনে নিতে পারেনি তাদের আশঙ্কা ছিল মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ পাঞ্জাব ভারত থেকে আলাদা হয়ে গেলে শিখদের স্বার্থ বিপন্ন হয়ে পড়ে।

ক্রিপস প্রস্তাব ব্যর্থতার কারণগুলি কি ছিল

বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সম্প্রদায়ের প্রত্যাখ্যানের ফলে ক্রিপস প্রস্তাব শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হয়েছিল। ক্রিপস প্রস্তাব ব্যর্থ হওয়ার প্রধান কারণ গুলি ছিল

প্রথমত
এই প্রস্তাবটিতে পূর্ণ স্বাধীনতাদানের কোন উল্লেখ ছিল না ব্রিটিশ সরকারের অনিচ্ছুক মনোভাব এই প্রস্তাবকে ব্যর্থ করেছিল।

দ্বিতীয়তঃ
এই প্রস্তাবের সংবিধান সভায় ভারতীয় প্রতিনিধিদের সরাসরি নির্বাচনের দ্বারা নিয়োগের কথা হয়নি।

তৃতীয়ত
এই প্রস্তাবে দেশীয় রাজ্যগুলির মানুষের ভাগ্য দেশীয় রাজন্যবর্গের ইচ্ছা অনিচ্ছার ওপর ছেড়ে দেওয়া হয়,
 যা আসলে পরোক্ষভাবে ভারতকে বিভাজনের ওই ইঙ্গিত দেয়।

চতুর্থত
ভারতের বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠী গুলির হিন্দু-মুসলিম শিখ প্রভৃতি কাছে এই প্রস্তাব গ্রহণ যোগ্য ছিলনা
তাই এই প্রস্তাব ব্যর্থ হয়েছিল।

পরিশেষে বলা যায় এই প্রস্তাব আসলে ভারতবাসীর কাছে প্রতারণা ছাড়া আর কিছুই নয়। ভারতের অর্থ এবং মানব সম্পদকে কাজে লাগিয়ে ব্রিটিশ সরকার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিজেকে বিজয়ীর আসনে প্রতিষ্ঠিত করতে চেয়েছিল।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url