সংস্কৃত কে বাংলার জননী বলা হয় কিনা আলোচনা করো।

সংস্কৃত কে বাংলার জননী বলা হয় কিনা আলোচনা করো।

অনেকের মতে সংস্কৃতই হলো বাংলা ভাষার জননী, তারা মনে করেন প্রাচীন ভারতীয় আর্য ভাষার শেষ পর্বের ভাষা সংস্কৃত। তাই সংস্কৃত ভাষার বিবর্তন সূত্রে মধ্য ভারতীয় আর্য ভাষা অর্থাৎ প্রাকৃত-অপভ্রংশ এবং সেখান থেকে নব্য ভারতীয় আর্য ভাষা থেকে বাংলা ভাষার জন্ম।

কিন্তু প্রকৃতপক্ষে সংস্কৃত বাংলা ভাষার জননী স্বরূপা নয়। সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায় এর মতে প্রাচীন ভারতীয় আর্য ভাষার অন্তর্ভুক্ত বৈদিক ভাষা তিনটি ধারায় বিবর্তিত হয় - সংস্কৃত, প্রাকৃত ও পালি। এই প্রাকৃত থেকে দীর্ঘ বিবর্তনের ফলে বাংলা ভাষার সৃষ্টি অর্থাৎ প্রাচীন ভারতীয় আর্য থেকে মধ্য ভারতীয় আর্যের মাগধি প্রাকৃত, মাগধী প্রাকৃত থেকে মাগধী অপভ্রংশ, মাগধী অপভ্রংশ থেকে অবহটঠ এবং তা থেকে বাংলার জন্ম। সুতরাং বলা চলে মাগধী অপভ্রংশ বাংলা ভাষার জননী। সংস্কৃতের সঙ্গে বাংলার যোগ বহুদূরবর্তী। হরপ্রসাদ শাস্ত্রীর ভাষায় সংস্কৃত বাংলা ভাষার - 'অতি অতি অতি অতি অতি বৃদ্ধ পিতামহি।'
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url
যেকোনো প্রশ্নের উত্তর পেতে ও অনলাইন কুইজ এ অংশগ্রহণ করতে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে যোগ দিন। https://telegram.me/Studyquoteofficial