প্রাচীন ভারতীয় আর্য ভাষার সময়সীমা ও বৈশিষ্ট্য আলোচনা করো।

প্রাচীন ভারতীয় আর্য ভাষার সময়সীমা ও বৈশিষ্ট্য আলোচনা করো।


সময়সীমা :
খ্রি: পূর্ব 1500 থেকে খ্রীষ্ট পূর্ব 600 খ্রিস্টাব্দ।

নিদর্শন :
ঋগবেদ

আর্য ভাষার বৈশিষ্ট্য :

 ধ্বনিগত বৈশিষ্ট্য :

১. সন্নিহিত দুটি ধ্বনির মধ্যে যেখানে সন্ধি সম্ভব সেখানে সন্ধি প্রায় সব ক্ষেত্রেই অপরিহার্য ছিল।

২. বিভিন্ন যুক্তব্যঞ্জনে স্বচ্ছন্দ ব্যবহার প্রচলিত ছিল (যেমন - ক্ত, র্য ইত্যাদি)। কিন্তু মধ্যভারতীয় আর্যে অনেক যুক্তব্যঞ্জন সমিভূত হয়েছে এবং আরো পরে নব্য ভারতীয় আর্য একক ব্যঞ্জনে পরিণত হয়েছে।
যেমন - ভক্ত -> ভত্ত -> ভাত

রূপগত বৈশিষ্ট্য :

১. প্রাচীন ভারতীয় আর্য তিনটি বচন অর্থাৎ একবচন, দ্বিবচন ও বহুবচন প্রচলিত ছিল। মধ্য ভারতীয় আর্যে দ্বিবচন লুপ্ত হয়েছিল।
২. মূল ইন্দো-ইউরোপীয়র মতো আটটি কারক ছিল।

ছন্দ রীতি গত বৈশিষ্ট্য :

১. প্রাচীন ভারতীয় আর্যে ছন্দা ছিল অক্ষর মুলক। মধ্য ভারতীয় আর্য ছন্দ হয়েছিল যাত্রা মুলক।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url